২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বুধবার,সকাল ৭:৪৫

শিরোনাম
খুলনার ৬ টি আসনে জয়ী নৌকার প্রার্থীরা বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তার লক্ষ্যে নৌবাহিনী মোতায়েন ভোটারদের হুমকি দিচ্ছে এমপি সালাম মুর্শিদীর লোকের, অভিযোগ স্বতন্ত্র প্রার্থীর ভারতীয় ও রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের সাথে নৌপ্রধানের সাক্ষাৎ বীরশ্রেষ্ঠ শহিদ রুহুল আমিন ও বীর বিক্রম শহিদ মহিবুল্লাহর শাহাদত বার্ষিকী পালন রূপসা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে বীর ‍মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান নৌবাহিনীর ৬৭১ জন নবীন নাবিকের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত আমরা একবারও বলিনি তফসিল পেছানোর কথা : ইসি আহসান হাবিব শীতকালীন রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করলেন নৌবাহিনী প্রধান

‘হাওয়া’র পরিচালক সুমনের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৯, ২০২২

  • শেয়ার করুন

‘হাওয়া’ চলচ্চিত্রের পরিচালক মেজবাউর রহমান সুমনের বিরুদ্ধে করা মামলা প্রত্যাহার করেছে বন বিভাগের বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিট। আজ বৃহস্পতিবার ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু বকর সিদ্দিকী প্রত্যাহারের আদেশ দেন।

মামলার বাদীর আইনজীবী মো. জাকির হোসেন খান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গত ২৮ আগস্ট ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আবু বকর ছিদ্দিকের আদালতে মামলার বাদী বন্যপ্রাণী পরিদর্শক নার্গিস সুলতানা এ আবেদন করেন। আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে এ বিষয় আদেশের জন্য আজ (২৯ সেপ্টেম্বর) নির্ধারণ করেন।

গত ১৭ আগস্ট ঢাকা সিএমএম আদালতে পরিচালক মেজবাউর রহমান সুমনের বিরুদ্ধে মামলাটি করা হয়। বন্যপ্রাণী পরিদর্শক নার্গিস সুলতানা বাদী হয়েছিলেন। বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন-২০১২ লঙ্ঘনের অভিযোগে মামলাটি করা হয়। ওই মামলায় বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন-২০১২-এর ধারা ৩৮ (১-২), ৪১ ও ৪৬ লঙ্ঘনের অভিযোগ এনেছে বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিট।

মামলার তিন সাক্ষীর একজন তদন্ত কর্মকর্তা অসীম গণমাধ্যমকে জানান, বন্যপ্রাণী পরিদর্শক নারগিস সুলতানা বাদী হয়ে মামলাটি করেন। মামলায় অন্য দুই সাক্ষী হলেন আব্দুল্লাহ আস সাদিক ও রথীন্দ্র কুমার বিশ্বাস। তাঁরা তদন্ত কমিটির সদস্য।

গত ২৯ জুলাই হাওয়া মুক্তি পায়। মুক্তির পর একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত চলচ্চিত্রটির রিভিউতে জানা যায়, এই চলচ্চিত্রে একটি পাখিকে হত্যা করে চিবিয়ে খেয়েছেন অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী। রিভিউ প্রকাশের পর হাওয়া চলচ্চিত্রে একটি শালিক পাখিকে খাঁচায় আটকে রাখা ও একপর্যায়ে হত্যা করে খাওয়ার দৃশ্য দেখানোর মাধ্যমে বন্যপ্রাণী আইন লঙ্ঘন হয়েছে বলে অভিযোগ তোলেন অনেকে। তারপর গত ১০ আগস্ট এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতি দেয় দেশে পরিবেশ ও প্রকৃতি নিয়ে কাজ করা ৩৩টি সংগঠনের সমন্বিত প্রয়াস বাংলাদেশ প্রকৃতি সংরক্ষণ জোট (বিএনসিএ)। এর পরদিন প্রেক্ষাগৃহে গিয়ে চলচ্চিত্রটি দেখে আইন লঙ্ঘনের প্রমাণ মিলেছে বলে জানান বন অধিদপ্তরের গঠিত তদন্ত কমিটির সদস্যরা।

যদিও সিনেমাটির নির্মাতা মেজবাউর রহমান সুমন শুরু থেকে দাবি করে আসছিলেন, তারা আইন লঙ্ঘনের মতো কিছু করেননি। তার ভাষায়, এটা একটা ফিকশনাল ওয়ার্ক। এখানে কোনো বন্যপ্রাণী হত্যা করা হয়নি। দৃশ্যায়নের প্রয়োজনে এখানে বিকল্প ব্যবহার করা হয়েছে।

সিনেমার শুরুতেই সেই ‘ডিসক্লেইমার’দেওয়া হয়েছিল জানিয়ে সুমন বলেছিলেন, যারা আলোচনা করছে, তারা সিনেমার শুরুটা হয়ত ‘মিস’করেছেন।

হাওয়া চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী, নাফিজা তুষি, শরীফুল রাজ, সুমন আনোয়ার, সোহেল মণ্ডল, নাসির উদ্দিন খান, রিজভী রিজু প্রমুখ।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন