১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার,দুপুর ১২:৫৯

শিরোনাম
সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা, স্থগিত বৃহস্পতিবারের এইচএসসি পরীক্ষাও মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী খুলনা মহানগরীর নতুন রাস্তা, জিরোপয়েন্ট ও শিববাড়ি মোড়ে সড়ক অবরোধ কেএমপি খুলনার অফিসার্স মেসের উদ্বোধন করেন আইজিপি খুলনায় আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত খুলনা জেলা আ’লীগের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত কয়রায় মহসিন রেজা, ডুমুরিয়ায় এজাজ ও পাইকগাছায় আনন্দ চেয়ারম্যান নির্বাচিত খুলনায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন ফেরদৌস আহম্মেদ’র প্রধানমন্ত্রী গরিব-দু:খী মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন করে চলেছেন-কেসিসি মেয়র

রামপালে মিরাজুলের মৃত্যু নিয়ে ধোয়াশা

প্রকাশিত: আগস্ট ১৩, ২০২৩

  • শেয়ার করুন

রামপাল প্রতিনিধি : উপজেলার শ্রীফলতলা গ্রামের মৃত. আব্দুল্লাহ শিকদারের পুত্র মিরাজুল শিকদার ৪১ বছর। স্ত্রী আফিরুন বেগম ও ১৭ বছর বয়েসী এক সন্তান মিলন শিকদারকে নিয়ে থাকেন নতুন করে জেগে ওঠা কৈগরদাসকাটির চরে। তারা প্রান্তিক ও ভূমিহীন হওয়ায় গত ৯ আগষ্ট বুধবার প্রধানমন্ত্রী প্রদত্ত সরকারীভাবে বরাদ্দকৃত আবাসন প্রকল্পের ঘরও পেয়েছেন।পেয়েছিলেন মাথা গোজার ঠাই।
মিরাজুলের স্ত্রী আফিরুন জানান, শনিবার দিনগত ভোর ৩ টায় ঘরে ফেরেন স্বামী মিরাজুল। এর পূর্বেই স্বামীর অপেক্ষায় বসে থেকে রাতে খাবার না খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন স্ত্রী। ভোররাতে এসে মিরাজুল বলেন নদীর পানি কমে গেছে, চলো জাল (ঝাকি জাল) টেনে আসি। তখন স্ত্রী বলেন, আমি যাবো না। এই বলে আবার ঘুমিয়ে পড়েন। ভোর ৪ টায় প্রতিবেশীদের ডাকচিৎকারে সে জেগে ওঠে। স্বামীকে বাড়ী থেকে কিছু দূরে অসুস্থ অবস্থায় দেখে তার কাছে জানতে চান, কি হয়েছে তোমার ? উত্তরে মিরাজুল বলেন, আমার বুক জ্বালা করছে, আমার বুকে একটু তেলপানি মেজে দাও। এরপরে সে আরও অসুস্থ হলে নৌকা ঠিক করে চালনা (দাকোপ) হাসপাতালে নেওয়ার পথে মিরাজুল মারা যান বলে তার স্ত্রী আফিরুন দাবী করেন।
কি কারণে সে মারা গেছেন? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, স্বামী মিরাজুল স্ট্রোক করেছিলেন। কেন তাকে ময়না তদন্তের জন্যে পু্লশি মর্গে পঠালো ? তখন তিনি অভিযোগ করে বলেন, আমার ভাসুর রিয়াজ, চাচা শশুরের পুত্র তারিকুল ও বাবু পু্লেিশর কাছে অভিযোগ করে বাগেরহাট মর্গে পাঠিয়েছে। আমার স্বামীর কোন শত্রু ছিল না, সবাই তাকে ভালোবাসতো।
এ বিষয়ে মৃত মিরাজুলের ভাই খোকন, রিয়াজ ও তারিকুলদের মতামত পাওয়া যায়নি। তবে তারা মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্যে ময়না তদন্তের জন্যে দাবী করেন বলে জানা গেছে।
বিষয়টি নিয়ে কথা হয় রামপাল থানার ওসি এস, এম আশরাফুল আলমের সাথে। তিনি জানান, লাশের গায়ে কোন আঘাতের চিহ্ন নেই। তার স্ত্রী ও সন্তানদের সাথে কথা বললে ও এলাকাবাসী জানায় মিরাজুল বুকের ব্যাথায় অসুস্থ হয়। পরিবারের অন্য সদস্যদের আপত্তি থাকায় রবিবার দুপুরে লাশ ময়না তদন্তের জন্যে বাগেরহাটের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন