১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, শনিবার,রাত ৩:০২

শিরোনাম
কয়রায় মহসিন রেজা, ডুমুরিয়ায় এজাজ ও পাইকগাছায় আনন্দ চেয়ারম্যান নির্বাচিত খুলনায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন ফেরদৌস আহম্মেদ’র প্রধানমন্ত্রী গরিব-দু:খী মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন করে চলেছেন-কেসিসি মেয়র খুলনায় তিনদফা দাবিতে ৩ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মচারীদের কর্মবিরতি পালন দীর্ঘ অপেক্ষার পর রেল নেটওয়ার্কে যুক্ত হলো মোংলা বন্দর সরকার সবসময় দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের পাশে থাকবে-ভূমিমন্ত্রী খুলনায় নতুন ভবনে নতুন আঙ্গিকে গণহত্যা জাদুঘর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারিরিক সম্পর্ক; মোংলা থানার ওসি (তদন্ত) ক্লোজড সুন্দরবনে আগুন, কারণ বের করতে আরও ৭ কার্যদিবস সময় নিলো তদন্ত কমিটি

প্রধানমন্ত্রীসহ সাবেক দু’সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে মুঠোফোনে কটাক্ষ: যুবলীগ নেতা বহিস্কার!

প্রকাশিত: আগস্ট ১০, ২০২০

  • শেয়ার করুন

এ কে আজাদ, পাইকগাছাঃ পাইকগাছায় যুবলীগ নেতা এমএম আজিজুল হাকিম কর্তৃক মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, সাবেক দুই এমপিকে কটাক্ষ করায় উপজেলা যুবলীগের দলীয় সভায় সাময়িক বহিস্কর করে জেলা যুবলীগের কাছে অনুমোদনের জন্য সুপারিশ করা হয়েছে। এ ঘটনায় সোমবার সাংগঠনিক কার্যালয়ে এক জরুরী সভায় এ সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে।

সভায় আলোচনা হয় যে পাইকগাছা উপজেলা যুবলীগ সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির সদস্য এম,এম আজিজুল হাকিমের সাথে মোবাইলে চাঁঁদখালী ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আলহজ্ব মুনছুর আলী গাজীর কথোপকথন হয়। মোবাইল কথোপকথনের এক পর্যায়ে আজিজুল হাকিম বলেন, “সাধারণ সম্পাদক টিপু, সাবেক দু’সংসদ সদস্য এ্যাড. সোহরাব আলী সানা বা নুরুল হকের (সদ্য প্রয়াত) দল করি না।” এমনকি আওয়ামীলীগের কেন্দ্রেীয় সভাপতির নাম উল্লেখ করে বলেন, ”আমি শেখ হাসিনার দলও করিনা আমি করি বাবু ভাইয়ের দল। বাবু ভাই আছে আমি আছি, বাবু ভাই নেই আমি নেই”। যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক ভাইরাল হয়ে পড়ে। দল, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও সাবেক এমপিদের বিরুদ্ধে কটাক্ষ করে দলীয় ভাবমুর্তি ভঙ্গের অভিযোগে দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা যুবলীগের বিশেষ জরুরী সভায় এ সকল বিষয় পর্যালোচনা করা হয়। উপজেলা যুবলীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক আনিছুর রহমান মুক্ত’র সভাপতিত্বে ও জগদীশ চন্দ্র রায়ের পরিচালনায় সভায় যুবলীগ নেতা এমএম আজিজুল হাকিমকে সর্বসম্মতিক্রমে সাময়িক বহিস্কার করা হয়। চুড়ান্ত ভাবে সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য কপি জেলা কমিটির কাছে প্রেরন করে চুড়ান্ত বহিষ্কারের অনুমোদনের জন্য সুপারিশ করা হয়। এ সময় বক্তব্য রাখেন, শেখ শহিদ হোসেন বাবুল, শেখ মাসুদুর রহমান, শেখ আব্দুস সাত্তার, গাজী আব্দুর রাজ্জাক রাজু, অহেদুজ্জামান মোড়ল, মোঃ জাকির হোসেন, গৌতম কুমার রায়, প্রণব কান্তি মন্ডল, এস,এম আসিফ ইকবাল রনি, মোঃ আকরামুল ইসলাম, প্রসুন কুমার সানা, শেখ আতাউর রহমান, আনিছুর রহমান গাজী ও তরিকুল ইসলাম। এ ব্যাপারে আজিজুল হাকিম ভুল স্বীকার করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক লাইভে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন