২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার,রাত ২:১২

শিরোনাম
খুলনার ৬ টি আসনে জয়ী নৌকার প্রার্থীরা বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তার লক্ষ্যে নৌবাহিনী মোতায়েন ভোটারদের হুমকি দিচ্ছে এমপি সালাম মুর্শিদীর লোকের, অভিযোগ স্বতন্ত্র প্রার্থীর ভারতীয় ও রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের সাথে নৌপ্রধানের সাক্ষাৎ বীরশ্রেষ্ঠ শহিদ রুহুল আমিন ও বীর বিক্রম শহিদ মহিবুল্লাহর শাহাদত বার্ষিকী পালন রূপসা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে বীর ‍মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান নৌবাহিনীর ৬৭১ জন নবীন নাবিকের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত আমরা একবারও বলিনি তফসিল পেছানোর কথা : ইসি আহসান হাবিব শীতকালীন রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করলেন নৌবাহিনী প্রধান

পাইকগাছায় ডাকাতি প্রস্তুতি কালে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র সহ আটক-৬

প্রকাশিত: জুলাই ১৭, ২০২০

  • শেয়ার করুন

এ কে আজাদ, পাইকগাছাঃ পাইকগাছায় ডাকাতি প্রস্তুতি কালে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র সহ ৬জনকে আটক করেছে পাইকগাছা থানা পুলিশ। এ ঘটনায় পাইকগাছা থানায় ডাকাতি মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে উপজেলার শিববাটি ব্রিজের পার্শ্ববর্তী ইব্রাহীম গার্ডেনের একটি পরিত্যাক্ত ঘর থেকে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে তাদেরকে আটক করা হয়।

মামালার বিবরণে জানা যায়, বৃহস্পতিবার গভীর রাতে পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওসি এজাজ শফী’র নেতৃত্বে সঙ্গীয় ফোর্স সেখানে হানা দেয় এবং ২০/২৫জন আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্যকে শিববাটী ব্রীজের পার্শ্ববর্তী ইবরাহিম গার্ডেনের পতিত ঘরের পাশে দেখতে পেয়ে অভিযান চালায় পুলিশ। ওই সময় ডাকাতরা ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। এ সময ঘটনাস্থল থেকে ৬জনকে আটক করা হয়। তাদের হেফাজতে থাকা ডাকাতির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলো, গোপালপুর গ্রামের সামছুদ্দীন গাজীর ছেলে মিজান গাজী (৪২), ঘোষাল গ্রামের রফি গাজী ছেলে রবিউল গাজী (৪০), লক্ষ্মীখোলা গ্রামের মোক্তার মোল্লার ছেলে টুটুল মোল্লা (৪০), উত্তর সলুয়ার মৃত ইমান আলী গাজীর ছেলে জাহিদুল গাজী (৩৭), নাছিরপুর গ্রামের আলী আহসানের ছেলে ছালাম বিশ্বাস, সরল গ্রামের মান্নান জোয়াদ্দারের ছেলে ফয়সাল জোয়াদ্দার। এ ঘটনায় মোট ১৭জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৫/৭জনের নামে মামলা হয়েছে। এ ব্যাপারে ওসি এজাজ শফী জানান, সঙ্গবদ্ধ চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় অপরাধমূলক কর্মকান্ড করে আসছিল। এদের নামে পাইকগাছা থানা সহ বিভিন্ন থানায় মামলা রয়েছে। সঙ্গবদ্ধ চক্রের অন্যান্য সদস্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। তাদেরকে আইনের আওতায় আনতে পারলে এ ধরণের অপরাধ প্রবণতা দ্রুতই কমানো সম্ভব হবে।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন