২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার,সন্ধ্যা ৬:৫১

শিরোনাম
খুলনার ৬ টি আসনে জয়ী নৌকার প্রার্থীরা বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তার লক্ষ্যে নৌবাহিনী মোতায়েন ভোটারদের হুমকি দিচ্ছে এমপি সালাম মুর্শিদীর লোকের, অভিযোগ স্বতন্ত্র প্রার্থীর ভারতীয় ও রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের সাথে নৌপ্রধানের সাক্ষাৎ বীরশ্রেষ্ঠ শহিদ রুহুল আমিন ও বীর বিক্রম শহিদ মহিবুল্লাহর শাহাদত বার্ষিকী পালন রূপসা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে বীর ‍মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান নৌবাহিনীর ৬৭১ জন নবীন নাবিকের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত আমরা একবারও বলিনি তফসিল পেছানোর কথা : ইসি আহসান হাবিব শীতকালীন রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করলেন নৌবাহিনী প্রধান

পাইকগাছায় উপজেলা চেয়ারম্যানের মৃত্যুর পর উপ-নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থী নিয়ে জল্পনা-কল্পনা তুঙ্গে!

প্রকাশিত: আগস্ট ১৪, ২০২০

  • শেয়ার করুন

এ কে আজাদ, পাইকগাছাঃ খুলনার পাইকগাছা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান গাজী মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুর পর উপ-নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রার্থী নিয়ে ব্যাপক জল্পনা-কল্পনা শুরু হয়েছে। অনেকে মাঠে ময়দানে শুরু করেছেন গণসংযোগ। কেউ কেউ চেয়ে আছে উপর মহলের দিকে। উপজেলার ১০টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভা নিয়ে পাইকগাছা উপজেলা। গত ৩১ মার্চ ২০১৯ তারিখে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে গাজী মোহাম্মদ আলী আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হন।

এ নির্বাচনে একই দলের ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এদিকে ১৭ জুলাই ২০২০ তারিখে উপজেলা চেয়ারম্যান গাজী মোহাম্মদ আলী করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেলে উপজেলা চেয়ারম্যানের পদটি শূন্য হয়। এরপরই শুরু হয় সম্ভাব্য প্রার্থী ও উপ-নির্বাচন নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে জল্পনা-কল্পনা। আগামী উপ-নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের কে হচ্ছেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী বা কারা কারা নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবেন? ইতোমধ্যে যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন, উপজেলা আ’লীগ সভাপতি আনোয়ার ইকবাল মন্টু, সহ-সভাপতি সমীরণ সাধু, সম্পাদক শেখ কামরুল হাসান টিপু, উপজেলা আ’লীগের সাবেক সম্পাদক মোঃ রশীদুজ্জামান মোড়ল, আ’লীগের জেলা সদস্য ও সাবেক সংসদ পুত্র আলহাজ্ব শেখ মনিরুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এ্যাড. শেখ আবুল কালাম আজাদ ও শেখ ফরহাদ হোসেন তুষার।

অনেকেই ইতোমধ্যে উপ-নির্বাচন নিয়ে শুরু করেছেন গণসংযোগ। কেউ কেউ বিভিন্ন মতবিনিময় সভা ও সামাজিক অনুষ্ঠানে প্রার্থী হওয়ার ইশারা ইঙ্গিত দিয়ে যাচ্ছেন। যারা পদ-পদবীধারী তাদের অনেকেই পদ হারানোর ভয়ে প্রকাশ্য প্রার্থী ঘোষণা না দিলেও চেয়ে আছে উপর মহলের দিকে। অনেকে বলছেন, দলীয় প্রতীক পেলে নির্বাচন করবেন তারা। আবার কেউ কেউ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন নির্বাচন করবেন বলে।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন