১৮ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার,দুপুর ১:০৫

শিরোনাম
সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা, স্থগিত বৃহস্পতিবারের এইচএসসি পরীক্ষাও মুক্তিযোদ্ধাদের সর্বোচ্চ সম্মান দেখাতে হবে: প্রধানমন্ত্রী খুলনা মহানগরীর নতুন রাস্তা, জিরোপয়েন্ট ও শিববাড়ি মোড়ে সড়ক অবরোধ কেএমপি খুলনার অফিসার্স মেসের উদ্বোধন করেন আইজিপি খুলনায় আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত খুলনা জেলা আ’লীগের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত কয়রায় মহসিন রেজা, ডুমুরিয়ায় এজাজ ও পাইকগাছায় আনন্দ চেয়ারম্যান নির্বাচিত খুলনায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন ফেরদৌস আহম্মেদ’র প্রধানমন্ত্রী গরিব-দু:খী মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন করে চলেছেন-কেসিসি মেয়র

ঝিনাইদহে ট্রাকের ধাক্কায় বাস উল্টে খাদে, নিহত ১১

প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২১

  • শেয়ার করুন

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বারোবাজার পেট্রোল পাম্প এলাকায় জে.কে পরিবহনের একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে ১১ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন বাসে থাকা প্রায় অর্ধশত যাত্রী।

এ দুর্ঘটনার পর প্রায় ২ ঘণ্টা সড়কটিতে সব ধরনের যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। ফলে ঘটনাস্থলের উভয় পাশে শতশত বাস ট্রাক আটকে পড়ে।

বুধবার (১০ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে ঝিনাইদহ-যশোর মহাসড়কের বারোবাজার পেট্রোল পাম্প এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতদের মধ্যে ৬ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে।

তারা হলেন, কালীগঞ্জ উপজেলার সুন্দরপুর গ্রামের ইসাহাক আলীর ছেলে মুস্তাফিজুর রহমান (২৪), ভাটপাড়া গ্রামের রনজিত দাসের ছেলে সনাতন দাশ (২৫), চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ডিঙ্গেদহ গ্রামের আব্দুর রশিদের মেয়ে রেশমা (২৬), আলমডাঙ্গা উপজেলার নাগদাহ গ্রামের জান্নাতউল বিশ্বাসের ছেলে ওয়ালিউল আলম শুভ (২৫), শৈলকুপা উপজেলার বগুড়া গ্রামের মৃত মহরম বিশ্বাসের ছেলে আব্দুল আজিজ (৭৫), সদর উপজেলার নাথকুণ্ডু গ্রামের আব্দুল ওয়াহেদের ছেলে ইউনুস আলী (৩২)।

বারোবাজার পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরির্দশক মোকলেচুর রহমান জানান, যশোর থেকে ছেড়ে আসা জে.কে পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস ঝিনাইদহের দিকে যাচ্ছিলো।

এসময় সড়কের বারোবাজার পেট্রোল পাম্প এলাকায় পৌঁছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি খাদে পড়ে যায়। পরে পেছন থেকে একটি ট্রাক ওই বাসটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই ৯ জন মারা যান। আহত হন বাসে থাকা প্রায় অর্ধশত যাত্রী। আহতদের মধ্যে একজনকে হাসপাতালে নেওয়ার পথে আরও একজন মারা যান। এছাড়া চিকিৎসাধীন অবস্থায় আরো একজন মারা যান। আহতদের মধ্যে সাতজনের অবস্থা আশংকাজনক। খবর পেয়ে কালীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ সদস্যরা আহতদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করে।

ঝিনাইদহ জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ বলেন, দুর্ঘটনায় আহতদের চিকিৎসার ব্যায়ভার বহন ও নিহতদের পরিবারের আর্থিক সহযোগিতা করা হবে।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন