আজ শুক্রবার, ১৬ই নভেম্বর, ২০১৮ ইং, ২রা অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

‘মাতাল’-‘নায়ক’র দাপটে হল পাচ্ছে না ‘মেঘকন্যা’

বিনোদন প্রতিবেদক: কয়েক দফা তারিখ পরিবর্তন করেও মুক্তি নিয়ে ঝামেলা যেন পিছু ছাড়ছে না ‘মেঘকন্যা’র। সর্বশেষ আগামীকাল (১২ অক্টোবর) ছবিটি প্রেক্ষাগৃহে শুভমুক্তির ঘোষণা দিয়ে জোর প্রচার প্রচারণা চালিয়ে আসছিল ‘মেঘকন্যা’ টিম। এখন সে তারিখটিও অনিশ্চিত। কারণ, একই দিনে মুক্তির অপেক্ষায় থাকা আরও তিনটি ছবির সাথে লড়াই করতে হচ্ছে তাদের। নায়ক ফেরদৌস ও নবাগতা নিঝুম রুবিনা অভিনীত ছবিটির প্রতিদ্বন্দ্বী সাইমনের ‘মাতাল’ ও বাপ্পীর ‘নায়ক’ এবং ‘আসমানী’। এই তিনটি ছবিও ১২ অক্টোবর মুক্তির জন্য জোর চেষ্টা চালাচ্ছে। শেষ পর্যন্ত কোন দুটি ছবি মুক্তি পাবে সেটি এখনো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তবে প্রচার প্রচারণায় সরগরম দেখা গেছে ছবির টিমগুলোকে। অবশ্য এ প্রচারণায় অনেকটাই পিছিয়ে রয়েছে ভিন্নধর্মী গল্পের দুই ছবি ‘মেঘকন্যা’ ও ‘আসমানী’।

গতকাল মঙ্গলবার কাকরাইল এলাকায় ঘুরে জানা গেল ‘মেঘকন্যা’ ছবিটি নিয়ে তেমন কোনো উচ্ছ্বাস নেই হল বুকিং এজেন্টদের মধ্যে। তাদের ভাষ্য মতে, ছবিটি হলে চালাতে নাকি আগ্রহ দেখাচ্ছেন না হল মালিকরা। ছবি মুক্তির মাত্র একদিন বাকী থাকলেও এখনো একটি হলও বুকিং দেয়নি ‘মেঘকন্যা’। অন্যদিকে মুক্তি নিয়ে সংশয় থাকলেও বেশ কিছু হলে বুকিং পেয়েছে ‘মাতাল’ ও ‘নায়ক’।

দীর্ঘদিন ধরে সিনেমায় অনিয়মিত ফেরদৌস ‘মেঘকন্যা’ ছবিটি দিয়ে ফিরলেও এর ট্রেলার ও গান তেমন আলোচনায় আসেনি। ছবিটিতে চমক বা প্রচারেরও ঘাটতি রয়েছে। তাই এই ছবি মুক্তি দিয়ে ঝুঁকি নেয়ার সাহস দেখাতে পারছেন না নেত্রকোণায় অবস্থিত ‘হীরামন’ সিনেমা হলের মালিক। সর্বশেষ আগামী ১২ অক্টোবর সারা দেশে মুক্তির দিন ঠিক করা হয়। আর মাত্র একদিন বাকি থাকলেও সিনেমাটি এখন পর্যন্ত হল মালিকরা নিচ্ছেন না। ঢাকা ও ঢাকার বাইরে কয়েকটি প্রেক্ষাগৃহে খবর নিয়ে জানা গেছে-তারা সিনেমাটি নিবেন না।

এদিকে ‘মেঘকন্যা’ ছবির প্রযোজক জয়া মিডিয়া প্রোডাকশনের কর্ণধার এ.জেড.এম জাহাঙ্গীর বলেন, ‘‘আমরা ‘মেঘকন্যা’ মুক্তি দেয়ার সব প্রস্তুতিই নিয়েছি। কিছু ষড়যন্ত্র হচ্ছে ছবিটি আটকে দিতে। কিন্তু আমি সব নিয়ম মেনেই এগিয়ে যাবো। অযৌক্তিক কোনো কিছু ‘মেঘকন্যা’-কে আটকাতে পারবে না। আমি ১২ তারিখে ছবি মুক্তির বিষয়ে প্রযোজক সমিতি থেকে নিবন্ধনপত্র নিয়েছি। ছবিও মুক্তি পাবে ইনশাল্লাহ।’’

অপ্রত্যাশিতভাবে হঠাৎ করে ১২ অক্টোবর ছবি মুক্তির ঘোষণা দেয়ায় ‘মাতাল’ ও ‘নায়ক’ ছবির প্রযোজকদের বিরুদ্ধে ‘মেঘকন্যা’র প্রযোজক মামলা করেছেন বলে শোনা যাচ্ছে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে এ.জেড.এম জাহাঙ্গীর বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি এখন কিছু বলতে চাই না। আমি সমঝোতা চাই।’

দেশে প্রায় আড়াইশ প্রেক্ষাগৃহ রয়েছে। কিন্তু ‘মেঘকন্যা’ কোনো হল না পাওয়ায় মামলা দায়ের করেছে সিনেমাটির প্রযোজক। বুধবার এ ব্যাপারে সুপ্রিম কোর্ট হতে একটি স্টে অর্ডার করা হয়। যেখানে- আগামী ১২ অক্টোবর ‘মাতাল’ ও ‘নায়ক’ ছবি দুটি প্রেক্ষাগৃহে প্রদর্শন না করার জন্য কিছু কারণ দেখানো হয়েছে। গণমাধ্যমের কাছে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ‘মেঘকন্যা’ সিনেমার প্রযোজক এ.জেড.এম জাহাঙ্গীর কবির।

তিনি আরো বলেন, ‘‘এখন পর্যন্ত কোনো হল পাইনি। তবে ‘মাতাল’ ও ‘নায়ক’ যে হলগুলো পেয়েছে সেগুলোর কিছু হল এখন আমরা পাব বলে আশা করছি। আমরা ১২ অক্টোবর ‘মেঘকন্যা’ মুক্তি দিচ্ছি।’’

মিনহাজ অভি পরিচালিত ‘মেঘকন্যা’ ছবির মূল ভূমিকায় অভিনয় করেছেন নায়ক ফেরদৌস ও নায়িকা নিঝুম রুবিনা। এতে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন একসময়ের জনপ্রিয় নায়িকা সুচরিতা, শম্পা হাসনাইন, ঋদ্ধ প্রমুখ।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিষয়ের আরো সংবাদ