আজ শুক্রবার, ৩রা এপ্রিল, ২০২০ ইং, ২০শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল সরকারি-বেসরকারি অফিস বন্ধ,সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে কাল থেকে মাঠে থাকছে সেনাবাহিনী

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব মোকাবিলায় সতর্কতামূলক ব্যবস্থার অংশ হিসেবে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করেছে সরকার। এ সময় বেসরকারি প্রতিষ্ঠানও বন্ধ থাকবে।

দেশে উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে সচিবালয়ে জরুরি প্রেস ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম আজ এ কথা জানান।

তিনি জানান, ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস ও তার পরের দুই দিন শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি। এর সঙ্গে মার্চের ২৯, ৩০, ৩১ এবং এপ্রিলের ১, ২ তারিখ সাধারণ ছুটি সংযুক্ত করা হয়েছে। এর পর ৩ ও ৪ এপ্রিল আবার সাপ্তাহিক ছুটি।

এছাড়া আগামীকাল মঙ্গলবার থেকে বিভাগীয় ও জেলাশহরগুলোতে সামাজিক দূরত্ব এবং সতর্কতামূলক ব্যবস্তার জন্য বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তা দিতে সেনাবাহিনী নিয়োজিত হবে।

এ সময় কাঁচাবাজার, ওষুধের দোকান, খাবারের দোকান ও নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রির দোকান ছাড়া অন্য সব প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। বন্ধ থাকবে সব ধরনের রাজনৈতিক, সামাজিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান। মসজিদে না গিয়ে বাড়িতে নামাজ পড়ার জন্যও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

এই সময়ের মধ্যে গণপরিবহন সীমিতভাবে চলাচল করলেও তা এড়িয়ে চলতে বলা হয়েছে। গণপরিবহনের সব চালক ও সহকারীদের মাস্কসহ প্রয়োজনীয় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

প্রত্যেক জেলা প্রশাসককে সংশ্লিষ্ট জেলার দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনকে ৫০০ চিকিৎসকের একটি তালিকা জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

সাধারণ ছুটির সময় গার্মেন্টস কারখানা খোলা থাকার ব্যাপারে জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, গার্মেন্টসের ব্যাপারে প্রতিষ্ঠানগুলো নিজেরা সিদ্ধান্ত নেবে।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

     এই বিষয়ের আরো সংবাদ