২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার,রাত ১২:৫৫

শিরোনাম
খুলনার ৬ টি আসনে জয়ী নৌকার প্রার্থীরা বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তার লক্ষ্যে নৌবাহিনী মোতায়েন ভোটারদের হুমকি দিচ্ছে এমপি সালাম মুর্শিদীর লোকের, অভিযোগ স্বতন্ত্র প্রার্থীর ভারতীয় ও রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের সাথে নৌপ্রধানের সাক্ষাৎ বীরশ্রেষ্ঠ শহিদ রুহুল আমিন ও বীর বিক্রম শহিদ মহিবুল্লাহর শাহাদত বার্ষিকী পালন রূপসা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে বীর ‍মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা প্রদান নৌবাহিনীর ৬৭১ জন নবীন নাবিকের শিক্ষা সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত আমরা একবারও বলিনি তফসিল পেছানোর কথা : ইসি আহসান হাবিব শীতকালীন রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ পরিদর্শন করলেন নৌবাহিনী প্রধান

রাতের বৃষ্টিতে ডুবেছে খুলনা নগরী

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২২

  • শেয়ার করুন

রাতের ভারী বৃষ্টিতে খুলনা মহানগরীর বেশিরভাগ এলাকা ডুবে গেছে।বুধবার মধ্যরাত থেকে বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল পর্যন্ত ভারি বর্ষণ শুরু হয় এতে করে খুলনা শহরের অধিকাংশ এলাকা ডুবে গেছে। প্লাবিত হয়েছে নিম্নাঞ্চল, শহর অঞ্চলের বেশিরভাগ বাড়ি ও মৎস্য ঘেরসহ ফসলের ক্ষেত। অথচ অনাবৃষ্টির কারণে খুলনা অঞ্চলের ফসলের মাঠ এবং ক্ষেত খামার ও মৎস্য সম্পদের ব্যাপক ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছিলো

আবহাওয়া অফিস বলছে, লঘু চাপের প্রভাবে মধ্যরাতের হঠাৎ ভারী বর্ষণ বিগত ছয় বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ। খুলনা আবহাওয়া অফিস বুধবার ভোর ৬ টা থেকে বৃহস্পতিবার ভোর ৬ টা পর্যন্ত সর্বোচ্চ ১৪৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে। যার মধ্যে বুধবার মধ্যরাত থেকে বৃহস্পতিবার ভোর ৬ টা পর্যন্ত ১৩০ মিলিমিটার।

রা‌তের বৃ‌ষ্টি‌তে খুলনার নিরালা, মুজগুন্নী, বয়রা ও প্রান্তিকাসহ অ‌ধিকাংশ আবা‌সি‌কের বাড়িতে পানি প্রবেশ করেছে। নীচ তলা নিমজ্জিত। সকল রাস্তায় পানি। পা‌নি ঢু‌কে‌ছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠা‌নেও। ফজর নামাজের সময় অধিকাংশ মুসল্লী রাস্তায় পানির কারণে মসজিদেও যেতে পারেননি। এছাড়া দীর্ঘদিন ধরে ড্রেন নির্মাণের কাজ করার জন্য মাটি ও বালুর বস্তা দিয়ে বেশির ভাগ ড্রেন আটকে দেওয়ার কারণে অবস্থা আরো বিপজ্জনক হ‌য়ে উঠেছে।

কোন‌টি রাস্তা আর কোন‌টি জলাশয় চেনার উপায় নেই। অ‌ধিকাংশ রাস্তা পা‌নির নি‌চে। ফ‌লে চল‌তে পার‌ছে না রিকশা-ই‌জিবাইকও। যথাসম‌য়ে প‌রীক্ষা কে‌ন্দ্রে যে‌তে চরম ভোগা‌ন্তি‌তে প‌ড়ে‌ছে এসএস‌সি ও সমমা‌নের পরিক্ষার্থীরা।

খুলনা আবহাওয়া অফিসের সহকারি আবহাওয়াবিদ মো. আমিরুল আজাদ বৃহস্পতিবার সকালে বলেন, বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপের কারণে গত রোববার থেকে খুলনায় থেমে থেমে হালকা ও মাঝারি বৃষ্টিপাত হচ্ছিল। এর মধ্যে বুধবার মধ্যরাত থেকে বৃহস্পতিবার ভোর ৬ টা পর্যন্ত এ বছরের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত ১৩০ মিলিমিটার রেকর্ড করা হয়েছে। যা বিগত ৬ বছরের মধ্যে খুলনা অঞ্চলের সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত।

তিনি বলেন, লঘুচাপ বৃহস্পতিবার সকালে ভারতের মধ্যপ্রদেশে গিয়ে শেষ হয়েছে। কিন্তু লঘু চাপের প্রভাব এখনো রয়ে গেছে। যে কারণে আরও ২/১ দিন বৃষ্টি হবে।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন