১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার,সকাল ৮:২১

মির্জা ফখরুল ও মির্জা আব্বাসকে গভীর রাতে আটক করেছে পুলিশ: বিএনপি

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৯, ২০২২

  • শেয়ার করুন

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসকে গোয়েন্দা পুলিশ আটক করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। আজ শুক্রবার বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শামসুদ্দিন দিদার ও বিএনপি মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য জানান।

তারা বলেন, ‘বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৩টার পরে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে তার উত্তরার বাসভবন থেকে এবং রাত ৩টা ২০ মিনিটে মির্জা আব্বাসকে তার শাহজাহানপুরের বাসা থেকে গোয়েন্দা পুলিশ তুলে নিয়ে গেছে।’

এদিকে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে আটকের পর তার স্ত্রী রাহাত আরা বেগম সাংবাদিকদের জানান, তিনি (ফখরুল) গভীর রাতে বাসায় আসেন। শরীর ক্লান্ত থাকায় ওষুধ খেয়ে সাথে সাথে ঘুমিয়ে পড়েন। রাত ৩টার দিকে ৪ জন লোক ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে বাসায় আসে। দরজা খুলে দিয়ে তাদের বসতে দেয়া হয়। তখন পুলিশ সদস্যদের মির্জা ফখরুল সাহেব জিজ্ঞেস করেন, আপনারা কেন আসছেন। জবাবে পুলিশ সদস্যরা বলেন, রাতে নাকি মামলা হয়েছে। কোর্টের ওয়ারেন্ট আছে। তারা তাকে নিয়ে যাবেন।

রাত সাড়ে তিনটার দিকে উনাকে (ফখরুল) নিয়ে তারা বের হয়ে যান। পরে জানতে পারি- ডিবি পুলিশের একটি দল ৪-৫টি গাড়ি নিয়ে সন্ধ্যা রাত থেকেই আমাদের বাসার আশপাশে অবস্থান নিয়েছিল। তারা আমার বাসার সিকিউরিটি গার্ডের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেছে। দরজা খুলতে দেরি করায় চড় থাপ্পড় মেরেছে।
এর আগে রাতে রাজধানীর কমলাপুর স্টেডিয়াম এবং মিরপুর বাংলা কলেজ মাঠ পরিদর্শন করেন মির্জা আব্বাসসহ বিএনপি নেতারা। মাঠ পরিদর্শন শেষে বাসায় ফেরেন মির্জা আব্বাস।

জানা গেছে, বিএনপির সমাবেশের ভেন্যু ঠিক করতে বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে কমলাপুর স্টেডিয়াম ও মিরপুর বাঙলা কলেজের মাঠ পরিদর্শন করে বাসায় ফেরেন মির্জা আব্বাস। বাসায় যাওয়ার আগে তিনি সাংবাদিকদের বলেছিলেন, মাঠ দুটি দেখেছি। কোথাও নিরাপদ নয় বিএনপি কর্মীরা। ফলে সিদ্ধান্ত নিতে পারছি না। স্থায়ী কমিটির সঙ্গে আলাপ করে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত জানাব।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন