আজ বৃহস্পতিবার, ১৪ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং, ৩০শে কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বাগেরহাটে ৭বছর বয়সী ধর্ষণের শিকার শিশু হাসপাতালে কাতরাচ্ছে

মাসুম হাওলাদার: বাগেরহাট সদর হাসপাতালে কাতরাচ্ছে ধর্ষণের শিকার ৭ বছর বয়সী এক শিশু। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে অসুস্থ শিশুটিকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে শিশুর পরিবার।
সোমবার (২৯ জুলাই) দুপুরে খাবার ও টেলিভিশন দেখানোর লোভ দেখিয়ে নিজ ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে সদর উপজেলার কার্তিকদিয়া গ্রামের মো. আলিম উদ্দিন পাইকের ছেলে আলতাফ পাইক(৩৩)। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে আলতাফ পাইককে (৩৩) আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।
আলতাফ পাইক সদর উপজেলার কার্তিকদিয়া গ্রামের মো. আলিম উদ্দিন পাইকের ছেলে।
অভিযোগ থেকে জানা গেছে, সোমবার (২৯ জুলাই) দুপুরে বাড়ির সামনে হাটছিল শিশুটি। এসময় আলতাফ পাইক খাবার ও টেলিভিশন দেখার লোভ দেখিয়ে ওই শিশুটিকে নিজের ঘরের মধ্যে ডেকে নিয়ে যায়। ঘরের মধ্যে উচ্চ শব্দে টেলিভিশন চালিয়ে মুখ চেপে ধরে শিশুটিকে ধর্ষণ করে আলতাফ পাইক।
শিশুটির বাবা বলেন, ঘটনার পরে আমার মেয়ের অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ শুরু হয়, তাই বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আমি ঘটনার পরেই বাগেরহাট মডেল থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছি।
বাগেরহাট সদর হাসপাতালে কর্তব্যরত সেবিকারা জানান, মেয়েটি প্রাথমিক অবস্থার থেকে এখন একটু ভালো। আরও কয়েকদিন চিকিৎসার প্রয়োজন। তার প্রয়োজনীয় চিকিৎসা চলছে।
বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহতাব উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, ঘটনা শোনার পরে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা দায়ের করা হয়েছে

সপাতালে কাতরাচ্ছে ধর্ষণের শিকার ৭ বছর বয়সী এক শিশু। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে অসুস্থ শিশুটিকে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করেছে শিশুর পরিবার।
সোমবার (২৯ জুলাই) দুপুরে খাবার ও টেলিভিশন দেখানোর লোভ দেখিয়ে নিজ ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে সদর উপজেলার কার্তিকদিয়া গ্রামের মো. আলিম উদ্দিন পাইকের ছেলে আলতাফ পাইক(৩৩)। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে আলতাফ পাইককে (৩৩) আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।
আলতাফ পাইক সদর উপজেলার কার্তিকদিয়া গ্রামের মো. আলিম উদ্দিন পাইকের ছেলে।
অভিযোগ থেকে জানা গেছে, সোমবার (২৯ জুলাই) দুপুরে বাড়ির সামনে হাটছিল শিশুটি। এসময় আলতাফ পাইক খাবার ও টেলিভিশন দেখার লোভ দেখিয়ে ওই শিশুটিকে নিজের ঘরের মধ্যে ডেকে নিয়ে যায়। ঘরের মধ্যে উচ্চ শব্দে টেলিভিশন চালিয়ে মুখ চেপে ধরে শিশুটিকে ধর্ষণ করে আলতাফ পাইক।
শিশুটির বাবা বলেন, ঘটনার পরে আমার মেয়ের অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ শুরু হয়, তাই বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আমি ঘটনার পরেই বাগেরহাট মডেল থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছি।
বাগেরহাট সদর হাসপাতালে কর্তব্যরত সেবিকারা জানান, মেয়েটি প্রাথমিক অবস্থার থেকে এখন একটু ভালো। আরও কয়েকদিন চিকিৎসার প্রয়োজন। তার প্রয়োজনীয় চিকিৎসা চলছে।
বাগেরহাট মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহতাব উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেন, ঘটনা শোনার পরে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

     এই বিষয়ের আরো সংবাদ