১৪ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার,রাত ৮:৪৮

পাটকল শ্রমিকদের পাওনা এককালীন পরিশোধে সিদ্ধান্ত নেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে আ’লীগের অভিনন্দন

প্রকাশিত: জুলাই ৩, ২০২০

  • শেয়ার করুন

শ্রমিক বান্ধব প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা শ্রমিকদের ভাগ্যোন্নয়নের লক্ষ্যে লোকসানকৃত রাষ্ট্রায়ত্ত্ব জুটমিল নতুন আঙ্গিকে পিপিপি এর মাধ্যমে পুনরায় মিল চালু করে শ্রমিকদের টাকা এককালীন পরিশোধ এবং দক্ষ শ্রমিককে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে চাকুরী দেয়ার সিদ্ধান্তকে অভিনন্দন জানিয়েছেন খুলনার আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, খুলনায় রাষ্ট্রায়ত্ব ৯টি পাটকলে প্রায় ১১ হাজার কোটি টাকা বিজেএমসিকে সরকার ভর্তুকি দিয়েছেন। তারপরেও এই মিলগুলি কোন লাভ তো দুরের কথা আসল টাকারও হদিস নেই। এমনকি শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনাও পরিশোধ করা হয়নি। সঙ্গত কারনেই শ্রমিকদের দুর্দশা এবং পাটকলকে আধুনিকায়নের কথা বিবেচনা করে গোল্ডেন হ্যা-সেকের মাধ্যমে শ্রমিকদের ন্যায্য পাওনা শ্রম আইন ২০০৬ এর ধারা-২৬ এর উপ ধারা (৩) অনুযায়ী নগদ ও সঞ্চয়পত্রের মাধ্যমে এককালীন পরিশোধ এবং কমবয়সী দক্ষ শ্রমিককে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে নতুন মিলে চাকুরীর সুযোগ করে দেয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন। এমনকি চাকুরী বিধি অনুযায়ী প্রাপ্য গ্রাচ্যুইটি, পি,এফ তহবিলে জমাকৃত সমুদয় অর্থ ও প্রাপ্য গ্রাচ্যুইটির উপর নির্ধারিত হারে গোল্ডেন হ্যা-শেক সুবিধা দিয়েছেন। এছাড়া কর্মরত ও অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিকদের যাবতীয় পাওনা অনধিক ২ (দুই) লাখ টাকার ক্ষেত্রে শতভাগ নগদে এবং ২ (দুই) লাখের অধিক পাওনার ক্ষেত্রে ৫০% নগদে ও ৫০% তিনমাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্রের মাধ্যমে ২০২০-২০২১ অর্থবছরের বাজেট হতে প্রচলিত আর্থিক বিধি বিধান অনুসরণ পূর্বক যথাশীঘ্র সম্ভব পরিশোধ করা। নগদে পরিশোধ্য পাওনা ব্যাংক হিসাবের মাধ্যমে এবং সঞ্চয়পত্রের মাধ্যমে পরিশোধ্য পাওনা সরাসরি সংশ্লিষ্টশ্রমিককে নির্ধারিত ব্যাংক/আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে পরিশোধ করা; বিজেএমসি’র অন্যান্য দায় দেনা ২০২১-২০২২ অর্থবছরে পরিশোধ করা; বিজেএমসি’র আওতাধীন মিলসমুহ কর্তৃক পরিচালিত বিভিন্ন মিলে বিজেএমসি’র অর্থায়নে পরিচালিত ০২ (দুই)টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ০২ (দুই)টি নিম্নমাধ্যমিক মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও ০৯ (নয়)টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় সরকারীকরণ/এমপিওভুক্ত করার জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়/শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে। যা অতীতে কোন সরকার শ্রমিকের ভাগ্যোন্নয়নে বা শ্রমিকদের পরিবারের সদস্যদের জন্য করেনি। সেটিই উদাহরণ সৃষ্টি করলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। নেতৃবৃন্দ শ্রমিক নেতৃবৃন্দ সহ দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, দেশ, জাতি ও শ্রমিকের বৃহত্তর স্বার্থে প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা’র সিদ্ধান্তকে সর্বত্র বাস্তবায়ন করতে হবে। এই সিদ্ধান্তের মধ্যদিয়ে প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিশন ২০২১ এবং ২০৪১ বাস্তবায়নে আরো একধাপ এগিয়ে যাবে বলে নেতৃবৃন্দ মনে করেন। ভিশন বাস্তবায়নেই সকলকে দলমত নির্বিশেষে একসাথে কাজ করার আহবান জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন, শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি, খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শেখ হারুনুর রশীদ, মহানগর আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এম ডি এ বাবুল রানা, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত কুমার অধিকারী, সাবেক সহ-সভাপতি এ্যাড. চিশতি সোহরাব হোসেন শিকদার, সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোল্লা জালাল উদ্দিন, কাজী আমিনুল হক, এ্যাড. কাজী বাদশা মিয়া, শেখ হায়দার আলী, কাজী এনায়েত হোসেন, আজমল আহমেদ তপন, বেগ লিয়াকত আলী, মল্লিক আবিদ হোসেন কবির, শেখ সিদ্দিকুর রহমান, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এ্যাড. রজব আলী সরদার, নুর ইসলাম বন্দ, সরফুদ্দিন বিশ্বাস বাচ্চু, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ মো. ফারুক আহমেদ, আবুল কালাম আজাদ কামাল, মো. আশরাফুল ইসলাম, কামরুজ্জামান জামাল, মো. নুরুজ্জামান, এ্যাড. মো. সাইফুল ইসলাম, শেখ সৈয়দ আলী, একেএম সানাউল্লাহ নান্নু, মো. আবিদ হোসেন, সিদ্দিকুর রহমান বুলু বিশ্বাস, কাউন্সিলর ফকির মো. সাইফুল ইসলাম, মনিরুল ইসলাম বাশার, তসলিম আহমেদ আশা, শহিদুল ইসলাম বন্দ, এস এম আনিছুর রহমান সহ জেলা উপজেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
॥ শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি’র বিবৃতি ॥
শ্রমিক বান্ধব প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা শ্রমিকদের ভাগ্যোন্নয়নের লক্ষ্যে লোকসানকৃত রাষ্ট্রায়ত্ত্ব জুটমিল নতুন আঙ্গিকে পিপিপি এর মাধ্যমে পুনরায় মিল চালু করে শ্রমিকদের টাকা এককালীন পরিশোধ এবং দক্ষ শ্রমিককে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে চাকুরী দেয়ার সিদ্ধান্তকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন।

॥ সেখ সালাহ্উদ্দিন জুয়েল এমপি’র বিবৃতি ॥
শ্রমিক বান্ধব প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা শ্রমিকদের ভাগ্যোন্নয়নের লক্ষ্যে লোকসানকৃত রাষ্ট্রায়ত্ত্ব জুটমিল নতুন আঙ্গিকে পিপিপি এর মাধ্যমে পুনরায় মিল চালু করে শ্রমিকদের টাকা এককালীন পরিশোধ এবং দক্ষ শ্রমিককে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে চাকুরী দেয়ার সিদ্ধান্তকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল।
॥ খুলনার সংসদ বৃন্দ ॥
শ্রমিক বান্ধব প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা শ্রমিকদের ভাগ্যোন্নয়নের লক্ষ্যে লোকসানকৃত রাষ্ট্রায়ত্ত্ব জুটমিল নতুন আঙ্গিকে পিপিপি এর মাধ্যমে পুনরায় মিল চালু করে শ্রমিকদের টাকা এককালীন পরিশোধ এবং দক্ষ শ্রমিককে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে চাকুরী দেয়ার সিদ্ধান্তকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের হুইপ পঞ্চানন বিশ্বাস এমপি, সাবেক মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ এমপি, আকতারুজ্জামান বাবু এমপি, আব্দুস সালাম মুর্শিদী এমপি।
॥ এস এম কামাল হোসেনের বিবৃতি ॥
শ্রমিক বান্ধব প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা শ্রমিকদের ভাগ্যোন্নয়নের লক্ষ্যে লোকসানকৃত রাষ্ট্রায়ত্ত্ব জুটমিল নতুন আঙ্গিকে পিপিপি এর মাধ্যমে পুনরায় মিল চালু করে শ্রমিকদের টাকা এককালীন পরিশোধ এবং দক্ষ শ্রমিককে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে চাকুরী দেয়ার সিদ্ধান্তকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কার্যনির্বাহী সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন।
॥ খুলনা মহানগর শ্রমিক লীগের বিবৃতি ॥
শ্রমিক বান্ধব প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা শ্রমিকদের ভাগ্যোন্নয়নের লক্ষ্যে লোকসানকৃত রাষ্ট্রায়ত্ত্ব জুটমিল নতুন আঙ্গিকে পিপিপি এর মাধ্যমে পুনরায় মিল চালু করে শ্রমিকদের টাকা এককালীন পরিশোধ এবং দক্ষ শ্রমিককে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে চাকুরী দেয়ার সিদ্ধান্তকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, খুলনা মহানগর শ্রমিক লীগের সভাপতি আবুল কাশেম মোল্লা, ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মো. মোতালেব মিয়া, সাধারণ সম্পাদক রনজিত কুমার ঘোষ।

॥ খালিশপুর পাটকল শ্রমিক নেতাদের বিবৃতি ॥
শ্রমিক বান্ধব প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা শ্রমিকদের ভাগ্যোন্নয়নের লক্ষ্যে লোকসানকৃত রাষ্ট্রায়ত্ত্ব জুটমিল নতুন আঙ্গিকে পিপিপি এর মাধ্যমে পুনরায় মিল চালু করে শ্রমিকদের টাকা এককালীন পরিশোধ এবং দক্ষ শ্রমিককে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে চাকুরী দেয়ার সিদ্ধান্তকে অভিনন্দন জানিয়েছেন, প্লাটিনাম এমপ্লায়েজ ইউনিয়নের সহ-সভাপতি তরিকুল ইসলাম, নন-সিবিএ’র সাবেক সহ-সভাপতি রম্ঃ জাসুদ শেখ, খালিশপুর জুট মিলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সরদার আলী আহমেদ, খালিশপুর জুট মিলের সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম শেখ, সহ-সভাপতি আশরাফ হোসেন, খালিশপুর জুট মিলের সহ-সভাপতি কাজী মোশাররফ হোসেন সহ বিভিন্ন পর্যায়ের সিবিএ নন-সিবিএ নেতৃবৃন্দ।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন