২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার,রাত ৯:৩৭

পাইকগাছায় স্ত্রী ও সন্তানদের মারপিটের অভিযোগে স্বামী আটক!

প্রকাশিত: আগস্ট ৪, ২০২০

  • শেয়ার করুন

এ কে আজাদ, পাইকগাছা: খুলনার পাইকগাছায় দ্বিতীয় স্ত্রী ও স্বামী কর্তৃক মারপিটের শিকার হয়েছে প্রথম স্ত্রী ও সন্তানেরা। এ ঘটনায় স্বামী সিরাজুলকে আটক করেছে থানা পুলিশ। সোমবার বিকালে উপজেলার সোলাদানা ইউনিয়নের বেতবুনিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মামলা সুত্রে জানাযায়, উপজেলার বেতবুনিয়া গ্রামের মজিদ ফকিরের পুত্র সিরাজুল ফকির তার ১ম স্ত্রী রেহানা বেগম (৪০) কে রেখে ৩/৪ মাস পুর্বে রোজিনা নামের একজনকে বিয়ে করে। এরপর প্রথম স্ত্রী ও সন্তানদেরকে ভরণ পোষণ বন্ধ করে দেয় স্বামী সিরাজুল। এ অবস্থায় প্রথম স্ত্র রেহানা তার দুইকন্যা মরিয়ম (২৩) ও চম্পা (১৫) এবং ১পুত্র হাসান (৯) কে নিয়ে অতি কষ্টে এক মানবেতর জীবনযাপন করে আসছে। অবস্থাদৃষ্টে খুটিনাটি বিষয় নিয়ে স্বামী সিরাজুল প্রায় তার ১ম স্ত্রী ও সন্তানদের উপর নির্যাতন ও মারপিট করতো। এরই ধারাবাহিকতায় ঘটনার দিন সোমবার বিকালে সিরাজুল আবারও তাদেরকে ধারাল চাকু বের করে মারতে উদ্যত হয় এবং বেধড়ক মারপিট করতে থাকে। এতে কন্যা চম্পার মাথায় চাকুর আঘাতে রক্তাক্ত জখম হয়। এতেও খ্যান্ত হয়নি তারা। এ সময় সিরাজুলের পিতা মজিদ ফকির, মা ফরিদা বেগম ও দ্বিতীয় স্ত্রী রোজিনা বেগমও তাদের কে মারপিট করে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সিরাজুল কে আটক করে। এসময় ধারাল চাকুটিও উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় পাইকগাছা থানায় পিতা সিরাজুলকে প্রধান আসামী করে নির্যাতিত কন্যা মরিয়ম (২৩) বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছে। যার মামলা নাং ০৩, তাং ০৪/০৮/২০। এ বিষয়ে পাইকগাছা থানা ওসি এজাজ শফি জানান, মামলার আসামী সিরাজুল কে কোর্টে প্রেরণ করা হয়েছে।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন