২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার,রাত ৮:১৩

পাইকগাছার দঃ সলুয়ায় মামা কর্তৃক ভাগ্নেকে বসতবাড়ী থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা!

প্রকাশিত: জুন ২৭, ২০২০

  • শেয়ার করুন

এ কে আজাদ, পাইকগাছা :খুলনার পাইকগাছা উপজেলার হরিঢালী ইউনিয়নের দক্ষিণ সলুয়া গ্রামে মামার ষড়যন্ত্রের শিকার আপন ভাগ্নে। প্রায় ৪০ বছরের ভোগদখলীয় বসত বাড়ী থেকে উচ্ছেদের চেষ্টার অভিযোগ ভাগ্নে দিপংকর দাশের। এমন বিষটি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার হয়নি বলে জানায় দিপংকর সহ পিতা রামপদ। এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তারা।

অভিযোগে জানাযায়, উপজেলার দক্ষিণ সলুয়া মৌজার জেএল নং ১১, আর এস খতিয়ান নং ১১১, আর এস দাগ নং২৯৩ এর মধ্যে ৫ কাঠা জমিতে নানা (ঠাকুর দাদা) মৃত্যু মহাদেব দাশের জীবদ্দশায় মৌখিক চুক্তিতে খরিদ অতপর ৪০ বছর যাবৎ বসত বাড়ি নির্মানে ভোগ দখল করে আসিতেছেন। এমতাবস্থায় নানা মহাদেব দাশ অসুস্থ হলে পুত্র বিষ্টুপদ দাশকে ডেকে উক্ত জমির রেজিস্ট্রীর দ্বায়িত্ব ভার অর্পন করেন। কিন্তু নানা মহাদেব সয্যশায়ী হওয়ায় রেজিস্ট্রী অফিসে যাওয়া সম্ভব হয়নি। এরই মধ্যে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

প্রসঙ্গত পিতার মৃত্যুতে পুত্র বিষ্টুপদ উক্ত জমির মালিকানাপ্রাপ্ত হন। সে সময় বিষ্টুপদ তার ভাগনে দিপংকর ও ভগ্নিপতি রামপদকে সাথে নিয়ে পাইকগাছা সাব রেজিষ্ট্রী অফিসে গেলে সে সময় রেজিষ্ট্রী খরচের টাকার সংকুলন দেখা দেওয়ায় ওইদিন মাত্র ২ কাটা জমি কবলামুলে দলিল সম্পাদন করেন তারা। কথা থাকে বাকী ৩ কাঠা জমি টাকা গুছিয়ে তারা রেজিষ্ট্রী করে নিবেন।

এমতাবস্থায় ৩ কাঠা জমির রেজিষ্ট্রী কাজ সম্পন্ন না হওয়ায় সম্প্রতি মামা বিষ্টুপদ দ্বিতীয় দফায় আবার টাকা দাবি করে এবং ভাগনে দিপংকরকে প্রস্তাব দেয়। এতে বিপদগ্রস্ত হয়ে পড়ে হত দরিদ্র ভাগনে দিপংকর ও তার পরিবার।

এদিকে দ্বিতীয় দফায় মামার চাহিদামত টাকা দিতে না পারায় গত বুধবার বসত বাড়ির সীমানা দখল করতে উঠেপড়ে লাগে মামা বিষ্টুপদ গং। ঐদিন আংশিক জমিতে তারা গায়ের জোরে একটি ঘর তৈরির কাজ শুরু করে দিয়েছে বলে জানায় ভাগ্নে দিপংকর।

বর্তমানে ৪কাঠা জমিতে দিপংকর ও তার পরিবার ভোগদখল করলেও মুলত তা থেকে উচ্ছেদের চেষ্টা চলিয়ে যাচ্ছেন মামা বিষ্টুপদ দাশ। ঘটনার পর অসহায় দিপংকরের পিতা রামপদ বাদী হয়ে স্থানীয় ইউপিতে গত ১২ ই মার্চ প্রতিকারের আশায় লিখিত আবেদনও করেন। কিন্তু ধুর্ত মামা বিষ্টুপদ দাশ সেখানে হাজির হয়নি। ফলে মিমাংসা হয়নি। এদিকে মহামারী করোনার মধ্যে সুযোগ বুঝে গত বুধবার আংশিক জমি দখলে নিয়ে নিয়েছে মামা বিষ্টুপদ। বাকী জমি দখল নিতে বসত বাড়ির উচ্ছেদের হুমকি প্রদান করে সে। এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগী দিপংকর ও তার পরিবার।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন