২০শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার,সকাল ৯:৩৮

শিরোনাম
কয়রায় মহসিন রেজা, ডুমুরিয়ায় এজাজ ও পাইকগাছায় আনন্দ চেয়ারম্যান নির্বাচিত খুলনায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন ফেরদৌস আহম্মেদ’র প্রধানমন্ত্রী গরিব-দু:খী মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন করে চলেছেন-কেসিসি মেয়র খুলনায় তিনদফা দাবিতে ৩ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মচারীদের কর্মবিরতি পালন দীর্ঘ অপেক্ষার পর রেল নেটওয়ার্কে যুক্ত হলো মোংলা বন্দর সরকার সবসময় দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের পাশে থাকবে-ভূমিমন্ত্রী খুলনায় নতুন ভবনে নতুন আঙ্গিকে গণহত্যা জাদুঘর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারিরিক সম্পর্ক; মোংলা থানার ওসি (তদন্ত) ক্লোজড সুন্দরবনে আগুন, কারণ বের করতে আরও ৭ কার্যদিবস সময় নিলো তদন্ত কমিটি

খুলনায় কেন্দ্রীয় যুবদলের ১০ নেতাকে কারাগারে প্রেরণ

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৭, ২০২৩

  • শেয়ার করুন

তথ্য প্রতিবেদক : খুলনা মহানগর বিএনপি অঙ্গ সংগঠনের ১০ নেতাকর্মীর জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরন করেছে মূখ্য মহানগর হাকিম মমিনুন নেছা।
বৃহস্পতিবার (৭ সেপ্টেম্বর) তিনি এ আদেশ দেন।
আসামী পক্ষের আইনজীবী এড. তৌহিদুর রহমান তুষার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
নেতারা হলেন, কেন্দ্রীয় যুবদলের সহ সভাপতি নাজমুল হুদা চৌধুরী সাগর, মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মাহাবুব হাসান পিয়ারু, মাসুদ পারভেজ বাবু, মহানগর ছাত্রদলের আহবায়ক ইস্তিয়াক আহম্মেদ ইস্তি, সদর থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি খায়রুজ্জামান সজিব, যুবনেতা শেখ নাদিমুজ্জামান জনি, নাসিম, রবি, হেলাল হোসেন গাজী, বেলাল হোসেন গাজী।
আসামী পক্ষের আইনজীবী এড. তৌহিদুর রহমান তুষার জানান, খুলনা থানার এসআই শরিফুল ইসলাম বাদী হয়ে গত ১৭ জুলাই বে-আইনীভাবে জনতাবদ্ধ হয়ে পুলিশের কাজে বাধাদান, পুলিশের ওপর হামলা, গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ এনে ১৪ জনের নাম উল্লেখসহ ৯৪ জনকে আসামী করে একটি মামলা করেন। মামলা দায়েরের পর আসামীরা গত ২৭ জুলাই উচ্চ আদালত থেকে ৬সপ্তাহের অর্ন্তবর্তিকালিন জামিন প্রাপ্ত হয়ে ৫ সেপ্টেম্বর খুলনা সিএমএম কোর্টে আত্মসর্ম্পন করে জামিন লাভ করেন এবং বেলবন্ড দাখিল করেন।
বৃহস্পতিবার পুনরায় আদালতে আত্মসর্মপন করলে দীর্ঘ শুনানী শেষে মূখ্য মহানগর হাকিম মমিনুন নেছা আসামীদের জামিন বাতিল করে কারাগারে প্রেরনের আদেশ দেন।
এড. তুষার আরো বলেন, ১৪ জনের মধ্যে এবাদুল হক রুবায়েত অন্য মামলায় পুর্বে থেকে কারাগারে বন্দি আছে। অপর তিন জন মহানগর ছাত্রদলের সদস্য সচিব তাজিম বিশ^াস, সাবেক মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি হেলাল আহমেদ সুমন ও যুবনেতা আসাদুজ্জামান মিঠু আত্মসমর্পন করেননি। এদিকে জামিন নামঞ্জুরের খবর পেয়ে আদালতপাড়ায় বিএনপি অঙ্গ ও সহযোগি সংগঠনের শত শত নেতাকর্মী উপস্থিত হয়ে নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। মহানগর বিএনপির আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনা, সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন এ সময় উপস্থিত ছিলেন। মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন বলেন, মিথ্যা বানোয়াট ও কাল্পনিক মামলা দিয়ে নেতাকর্মীদের কারাগারে বন্দি করে বর্তমান ফ্যাসিস্ট সরকার ক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী করার স্বপ্ন দেখছেন গণবিস্ফোরনে সে স্বপ্ন- দুঃস্বপ্নে পরিনত হবে। তিনি চলমান একদফা আন্দোলন বেগবান করতে নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন