১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, রবিবার,দুপুর ২:৫৮

শিরোনাম
কয়রায় মহসিন রেজা, ডুমুরিয়ায় এজাজ ও পাইকগাছায় আনন্দ চেয়ারম্যান নির্বাচিত খুলনায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন ফেরদৌস আহম্মেদ’র প্রধানমন্ত্রী গরিব-দু:খী মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন করে চলেছেন-কেসিসি মেয়র খুলনায় তিনদফা দাবিতে ৩ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মচারীদের কর্মবিরতি পালন দীর্ঘ অপেক্ষার পর রেল নেটওয়ার্কে যুক্ত হলো মোংলা বন্দর সরকার সবসময় দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের পাশে থাকবে-ভূমিমন্ত্রী খুলনায় নতুন ভবনে নতুন আঙ্গিকে গণহত্যা জাদুঘর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শারিরিক সম্পর্ক; মোংলা থানার ওসি (তদন্ত) ক্লোজড সুন্দরবনে আগুন, কারণ বের করতে আরও ৭ কার্যদিবস সময় নিলো তদন্ত কমিটি

কয়রায় মহসিন রেজা, ডুমুরিয়ায় এজাজ ও পাইকগাছায় আনন্দ চেয়ারম্যান নির্বাচিত

প্রকাশিত: জুন ৯, ২০২৪

  • শেয়ার করুন

তথ্য প্রতিবেদক : খুলনার কয়রায় উপজেলায় জিএম মহসিন রেজা, ডুমুরিয়ায় গাজী এজাজ আহমেদ ও পাইকগাছায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আনন্দ মোহন বিশ্বাস উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।
ঘূর্ণিঝড় রেমালের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত খুলনার উপকূলীয় এই তিনটি উপজেলায় ভোট গ্রহণ আজ রোববার (৯ জুন) অনুষ্ঠিত হয়। ডুমুরিয়া, ফুলতলা ও কয়রা উপজেলায় তৃতীয় ধাপে গত ২৯ মে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। উপজেলায় নির্বাচনে শেষে ভোট গণনায় এ ফলাফল পাওয়া গেছে।
ডুমুরিয়া উপজেলায় ৫৬ হাজার ৭৪০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান গাজী এজাজ আহমেদ, তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি অ্যাডভোকেট মুনিমুর রহমান নয়ন পেয়েছেন ২৪ হাজার ৮৭৯ ভোট।
নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ আল আমিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
কয়রা উপজেলা চেয়ারম্যান পদে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোটরসাইকেল প্রতীকে ৩৫ হাজার ৯২৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বর্তমান চেয়ারম্যান এসএম শফিকুল ইসলাম আনারস প্রতীক নিয়ে ২৭ হাজার ৩শ’ ১৬ ভোট পেয়েছেন।
নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বি এম তারিক-উজ-জামান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
এছাড়া পাইকগাছা উপজেলায় ৩৩ হাজার ৫৯৮ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন আনন্দ মোহন বিশ্বাস। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি শেখ কামরুল হাসান পেয়েছেন ২৯ হাজার ৫২৯ ভোট।
নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহেরা নাজনিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ডুমুরিয়া উপজেলায় ভোট কেন্দ্র ছিলো ১০৮টি। ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ৭৩ হাজার ১১৪ জন। তার মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৩৬ হাজার ৫০৭ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ৩৬ হাজার ৬০৭ জন।
কয়রা উপজেলায় মোট ভোটার ১ লাখ ৭৮ হাজার ৫৩৭ জন। পুরুষ ভোটর ৯০ হাজার ৩২০ জন, মহিলা ভোটার ৮৮ হাজার ১৬ জন ও হিজড়া ভোটার একজন। ভোট কেন্দ্র ৬৭টি।
পাইকগাছায় ৯৭টি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। মোট ভোটার ছিলো ২ লাখ ৩১ হাজার ৯৩৮ জন। যার মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ১৬ হাজার ৮৭১ এবং নারী ১ লাখ ১৫ হাজার ৬৭ জন।
রিটার্নিং কর্মকর্তা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক নাজমুল হুসেইন খান বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে পদক্ষেপ নেওয়া হয়। ৩৭ জন নির্বাহী ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করেন। ডুমুরিয়া ও পাইকগাছায় তিন প্লাটুন করে বিজিবি এবং কয়রায় দুই প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন করা হয়। তাছাড়া কয়রা উপজেলায় কোস্ট গার্ড দায়িত্ব পালন করে। অপরদিকে ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে র‌্যাব, হাইওয়ে পুলিশ, নৌপুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীবাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করে।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন