আজ বৃহস্পতিবার, ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং, ২৭শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ক্রিকেটের জনক ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ জয়

ক্রিকেটের জনক ইংল্যান্ড। এর আগে তিনবার ফাইনাল খেলেছে তারা। কিন্তু কখনোই ক্রিকেটের সর্বোচ্চ আসরের শিরোপার স্বাদ পায়নি । দীর্ঘ ২৭ বছর অপেক্ষার পর আবারও ফাইনাল খেলার সুযোগ পায় ইংলিশরা। ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত সেই ফাইনালেই বাজিমাত করেছে ইংল্যান্ড। প্রথমবারের মতো জিতেছে বিশ্বকাপ ট্রফি।

ক্রিকেট বিশ্ব অবশেষে পেলো নতুন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন। আজ বিশ্বকাপ ২০১৯ আসরের ফাইনাল ম্যাচে ইংল্যান্ড নিউজিল্যান্ডকে সুপার ওভারে হারিয়ে ১ম বারের মত স্বপ্নের বিশ্বকাপ হাতিয়ে নেয়।
চলতি বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচে আজ মাঠে নেমেছিল ইংল্যান্ড ও নিউজিল্যান্ড। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ২৪১ রান করে নিউজিল্যান্ড।
জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি ইংল্যান্ডের। ১৭ রান করে হেনরির বলে লাথামকে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন রয়। অন্যদিকে ফার্গুসনের বলে বোল্ড হয়ে ৩৬ রান করে সাঝঘরে ফিরেন বেয়ারস্টো। এরপর দ্রুতই ফিরে যান রুট ও মরগান।
৭ রান করে নিশামের বলে লাথামের ক্যাচে ফিরেন রুট। নিশামের বলে ফার্গুসনের দুর্দান্ত ক্যাচে ৯ রান করে ফিরেন মরগান। ৮৬ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে বসে তারা। তবে এরপর জস বাটলার ও বেন স্টোকসের প্রতিরোধে বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে ইংলিশরা।
৫৩ বলে ৫ চারে হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করেন বাটলার। অন্যদিকে ৮১ বলে ৩ চারে হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করেন স্টোকস। তবে ৫৯ রান করে ফার্গুসনের বলে সাউদির হাতে তালুবন্ধি হয়ে ফিরেন বাটলার।
বাটলারে পর বেশী সময় মাঠে থাকতে পারে নি ক্রিস ওকস। মাত্র ২ রান করেই ইংল্যান্ডকে বিপদে ফেলে সাজ ঘরে ফিরে যায় ওকস। পরে প্লায়ংকেট ও স্টোকস খেলা নিয়ে যায় জয়ের কাছে।
কিন্তু ইংল্যান্ডের যখন ১০ বলে ২২ রান লাগে তখন প্লাংকেট ১০ রানে আউট। পরের বলেই স্টোকস ছক্কা হাঁকিয়ে আবার জয়ের আশা জাগায়। নিশাম তার লাস্ট ওভারে আর্চারকে আউট করে ইংল্যান্ডকে আবারও বিপদে পরে।

পরে শেষ ওভারে চরম নাটিকয়তায় বিশ্বকাপ ২০১৯ এর ফাইনাল সুপার ওভারে গড়িয়েছে। শেষ ওভারে ১৫ রান প্রয়োজন ছিল ইংল্যান্ডের। পরে ইংল্যান্ড ১৪ রান নিয়ে ম্যাচ টাই করে।
সুপার ওভারে ইংল্যান্ড ১৫ রান করতে সক্ষম হয়। পরে নিউজিল্যান্ড ব্যাট করে ১৫ রান করে। ফলে ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ পেয়ে যায়।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

     এই বিষয়ের আরো সংবাদ