আজ বুধবার, ৩রা মার্চ, ২০২১ ইং, ১৮ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কপিলমুনিতে মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী; মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সকলকে কাজ করার আহবান

এ কে আজাদ,  কপিলমুনি (খুলনা) প্রতিনিধিঃ

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী আলহাজ্ব এ্যড. আ.ক.ম মোজাম্মেল হক (এমপি) বলেছেন, সরকার মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক স্মৃতি সমৃদ্ধ স্থানগুলির সংরক্ষণের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে আমরা নানামুখী উদ্যোগ গ্রহন করেছি। দেশের মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণকারী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তোষজনক সম্মানী ভাতা ও তাদের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা প্রদান করছি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় সম্মুখ যুদ্ধে অংশগ্রহণের স্থানকে আমরা সংরক্ষণ করার চেষ্টা করছি, এ বিষয়ে আপনাদের সহযোগিতা কামনা করছি। যুদ্ধকালীন যারা মারা গেছেন তাদের কোন তালিকা প্রণয়ন করছেন কিনা এমন অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অনেক পরিবার এখন সামাজিক ভাবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে, সে কারণে তারা সেটা করতে অনিচ্ছা প্রকাশ করেন।

মন্ত্রী ৯ ডিসেম্বর খুলনার কপিলমুনিতে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি কমপ্লেক্স ভবনের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ সব কথা বলেন। কুয়াশাচ্ছন্ন হওয়ায় নির্দৃষ্ট সময়ের দেড় ঘন্টা পর তিনি পাইকগাছা উপজেলার ঐতিহাসিক মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত কপিলমুনিতে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি কমপ্লেক্সের শুভ উদ্বোধন করেন। এ সময় মন্ত্রীকে গার্ড অব অর্নার প্রদান করে উপজেলা প্রশাসন।

এর আগে তিনি কপিলমুনিতে নবনির্মিত মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। দুপুর ৩ টার দিকে তিনি উপজেলার হরিঢালী অনির্বাণ লাইব্রেরীর আয়োজনে মধ্যাহ্নভোজে অংশগ্রহনের পর বিকাল পৌনে ৫ টায় যুদ্ধকালীন রাজাকারদের ব্যবহৃত সেই সুরম্য ভবনটি (রায় সাহেব বিনোদ বিহারী সাধুর বাড়িটি) পরিদর্শন করেন।

এবং সেখান থেকে কপিলমুনিতে অনুষ্ঠিত হানাদার মুক্তদিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যোগদান করেন। এ সময় সফর সঙ্গী হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সচিব শেখ ইউসুফ হারুন, মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রনালয়ের সচিব তপন কান্তি ঘোষ।

আরো উপস্থিত ছিলেন, খুলনা-৬ সংসদ আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সাদিকুর রহমান, উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইকবাল মন্টু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবিএম খালিদ হোসেন সিদ্দিকী, সহকারী কমিশনার ভুমি মোঃ আরাফাতুল আলম, থানা ওসি এজাজ শফি, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুল হাসান টিপু, আনন্দ মোহন বিশ্বাস, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ রশিদুজ্জামান, ইউপি চেয়ারম্যান কওসার আলী জোয়াদ্দার, আব্দুর রাজ্জাক রাজু  সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নের্তৃবৃন্দ ও স্থানীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ভাল লাগলে শেয়ার করুন

মন্তব্য করুন

     এই বিষয়ের আরো সংবাদ

ফেসবুকে দৈনিক তথ্য