২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, মঙ্গলবার,সন্ধ্যা ৭:৪৪

এমপি মিলনের নির্দেশে শরোনখোলা জলাবদ্ধতা নিরসনের উদ্যোগ নিল প্রশাসন

প্রকাশিত: জুন ১৭, ২০২০

  • শেয়ার করুন

মাসুম হাওলাদার বাগেরহাট: বাগেরহাটের ৪ আসনের সংসদ সদস্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাড আমিরু আলম মিলনের নির্দেশে
শরোনখোলা জলাবদ্ধতা নিরসনের উদ্যোগ নিল প্রশাসন।
বাগেরহাটের পানি উন্নয়ন বোর্ড, নির্মাণাধীন রায়েন্দা বাজার রক্ষাবাঁধের আটটি ড্রেন দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকা ওই পানি আর নামতে পারেনি। এর ফলে প্রায় একমাস ধরে পানিবন্দী রয়েছে উপজেলা সদরের রায়েন্দা বাজার ও আশপাশের বসবাসকারী পরিবারগুলো
ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের বৃষ্টি পানি জমে শরোনখোলা রায়েন্দা সরকারি পাইলট হাইস্কুলের পশ্চিম পাশ থেকে রায়েন্দা সরকারি খাদ্য গুদাম পর্যন্ত এলাকাটিতে জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। রায়েন্দা শহর রক্ষা বাঁধ নির্মান করায় ওই এলাকার পানি নিষ্কাশনের একমাত্র ড্রেনটির মুখ বন্ধ হয়ে যাওয়ায়এর ফলে এমন দুরাবস্থার সৃষ্টি হয়। যার ফলে, তিন শতাধিক পরিবার প্রায় একমাস ধরে পানিবন্দী হয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করে আসছিল। বাগেরহাট ৪ মোরেলগঞ্জ ও শরণখোলা আসনের মাননীয় সাংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড আমিরুল আলম মিলনের নির্দেশে বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার সদর রায়েন্দা শহরতলীর সেই জলাবদ্ধতা নিরসনের উদ্যোগ নিয়েছে প্রশাসন। তিন শতাধিক পরিবার পানিবন্দী অবস্থায় থাকার সংবাদ বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হয়। এরপর
আমিরুল আলম মিলন,এমপির নির্দেশে বুধবার থেকেই শরোনখোলা উপজেলা প্রশাসনে পানি নিষ্কাশনের জন্য বাঁধ কেটে পাইপ বসানোর কাজ শুরু করে বাঁধ বাস্তবায়নকারী সংস্থা উপকূলীয় বাঁধ উন্নয়ন প্রকল্পের (সিইআইপি) লোকজন। শরণখোলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সরদার মোস্তফা শাহিন বলেন এস্কেভেটর মেশিন দিয়ে থানার ঘাটের পুরনো ড্রেনের মুখ থেকে বাঁধ কেটে পাইপ বসানো হয়েছে। এতে কিছুটা হলেও জলাবদ্ধতা দুর হবে।সিইআইপির প্রকৌশলী মো. দেলোয়ার হাসেন বলেন রায়েন্দা শহর ও আশপাশ এলাকার পানি নিষ্কাশনের জন্য প্রকল্পের মাধ্যমে ১০টি ড্রেন নির্মান করা হবে। বর্ষা মৌসুমের পরই ড্রেনের কাজ শুরু হবে।
পানি বন্দী এলাকার মানুষ আমিরুল আলম মিলন এমপিসহ প্রশাসন ও সংবাদকর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে

ভাল লাগলে শেয়ার করুন
  • শেয়ার করুন